bestearnidea.com

Online earning site will help you how to earn money

লাবন্যময় উজ্জ্বল ত্বকের যত্নে বেসন ও লেবু

Share

লাবন্যময় উজ্জ্বল ত্বকের যত্নে বেসন ও লেবু

আমাদের রান্নাঘরে অবহেলায় এমন অনেক জিনিস পড়ে রয়েছে যা দিয়ে খুব ভালভাবে রুপচর্চা করা যায়।

এরকম একটি উপাদান হচ্ছে বেসন। ত্বকের যত্নে বেসন ম্যাজিকের মত কাজ করে।

ত্বকের নানা রকম সমস্যা যেমন তৈলাক্ত ত্বক

 

বেসন ও টকদই

বেসন ও টকদই এই দুটো উপাদানই ত্বককে ফর্সা করে। এক চা চামচ বেসনের সাথে পরিমাণমত টকদই মিশিয়ে ঘন পেস্ট বানাতে হবে। এটি ত্বকে লাগিয়ে রাখতে হবে ২৫ মিনিট। এরপর ধুয়ে ফেলতে হবে।

বেসন, কাঁচা হলুদ ও কাঁচা দুধ

এটি ত্বক ফর্সা করতে ম্যাজিকের মত কাজ করে। এক চা চামচ বেসন নিতে হবে। এতে এক চিমিটি কাঁচা হলুদ মেশাতে হবে।

এই মিশ্রণে পরিমাণমত কাঁচা দুধ মিশিয়ে সুন্দর একটি পেস্ট বানাতে হবে।

এই মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে রাখতে হবে ২০ মিনিট। এরপর হাতে অল্প পানি নিয়ে আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করতে হবে ২ মিনিট।

তারপর মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এই প্যাকটি লাগিয়ে কখনই রোদে যাবেন না বা চুলার কাছে যাবেন না।

তাহলে ত্বক পুড়ে যাবে। একটু সাবধানতা অবলম্বন করে এক সপ্তাহ এই প্যাকটি ব্যবহার করে দেখুন।

ত্বকের উজ্জ্বলতা দেখে নিজেই অবাক হয়ে যাবে।

 

বেসন ও লেবু

বেসনকে বলা হয় তৈলাক্ত ত্বকের বেস্ট ফ্রেন্ড। পরিমাণমত বেসন ও লেবুর রস দিয়ে একট প্যাক বানান।

এটি মুখে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। এরপর ভাল করে মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুইদিন এটি ব্যবহার করুন।

বেসন, লেবুর রস ও টকদই

এক চা চামচ বেসনের সাথে ১/২ চা চামচ লেবুর রস ও ১/২ চা চামচ টকদই মিশিয়ে নিতে হবে।

এই মিশ্রণ রোজ রাতে ঘুমানোর আগে লাগিয়ে রাখতে হবে ২০ মিনিট। এরপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।

দাগ দূর করতে বেসন

 

বেসন, কমলার খোসা গুড়া ও টকদই

১ চা চামচ বেসন ও ১ চা চামচ কমলার খোসা গুড়া নিন। এর সাথে পরিমাণমত টকদই মিশিয়ে প্যাক তৈ্রী করুন।

মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ থেকে ২০ মিনিট। এরপর ভাল করে ধুয়ে মুখ পরিস্কার করে নিন।

এটি সপ্তাহে অন্তত তিনদিন ব্যবহার করুন।

 

বেসন, কাঁচা হলুদ ও টমেটো

এক চা চামচ বেসনের সাথে পরিমাণমত পরিমাণমত টমেটোর রস মিশিয়ে নিন।

এতে এক চিমিটি কাঁচা হলুদ বাটা মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

এই প্যাকটি সবসময় রাতে ব্যবহার করবেন। কারণ কাঁচা হলুদ দিনে ব্যবহার করলে ত্বক কালো হয়ে যাবার ভয় থেকেই যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

';
Share
Share