Prayer calendar

Permanent calendar of Prayer

নামায ও রোযার স্থায়ী সময়সূচী।। নামাজের চিরস্থায়ী ক্যালেন্ডার

নামায ইসলামের দ্বিতীয় স্তম্ভ। সঠিক সময়ে সালাত আদায় করার গুরুত্ব সম্পর্কে কুরআন ও হাদীসে অনেক তাগীদ এসেছে। এ সম্পর্কে আল-কুরআনে আল্লাহ তাআলা বলেন :
إِنَّ الصَّلَاةَ كَانَتْ عَلَى الْمُؤْمِنِينَ كِتَابًا مَوْقُوتًا
নিশ্চয়ই নির্ধারিত সময়ে নামায আদায় করা মুসলমানের উপর ফরয করা হয়েছে। (সুরা আন্-নিসা আয়াত ১০৩)
এ বিষয়ে অনেক হাদীস রয়েছে।
যেমন:
আবু যার (রা.) থেকে বর্ণিত ।
তিনি বলেছেনঃ রাসুলুল্লাহ (সাঃ) আমাকে বললেনঃ তুমি যদি এমন ইমামের অধীনস্থ হয়ে পড় যে উত্তম সময়ে নামায না
পড়ে দেরী করে পড়বে তাহলে কি করবে ?
আবু যার (রা.) বলেন- একথা শুনে আমি জিজ্ঞেস করলাম (হে আল্লাহর রাসুল)
এরূপ অবস্থায় পতিত হলে আপনি আমাকে কি করতে আদেশ করছেন ? রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বললেন, তুমি উত্তম সময়ে নামায পড়ে নেবে ।
তারপরে যদি তাদের সাথে অর্থাৎ ইমামের সাথে জামায়াতে নামায পাও তাহলে তাদের সাথেও পড়বে । এটা তোমার জন্য নফল হিসাবে গন্য হবে।
(সহীহ মুসলিম ২য় খন্ড ইসলামিক ফাউন্ডেশন ৫ম অধ্যায় অনুচ্ছেদ ৪৩ হাদিস নং- ১৩৫০)
রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বললেনঃ হে আবু যার (রা.)! আমার পরে অচিরেই এমন সব আমীর বা শাসকের আবির্ভাব ঘটবে যারা একেবারে শেষ অয়াক্তে নামায পড়বে ।
এরূপ হলে তুমি কিন্তু সময় মত (নামাযের উত্তম সময়ে) নামায পড়ে নেবে ।
পরে যদি তুমি তাদের সাথে নামায পড়ো তা তোমার জন্য নফল হিসাবে গন্য হবে ।
আর যদি তা না হয় তাহলে তুমি অন্ততঃ তোমার নামায রক্ষা করতে সক্ষম হলে।
(সহীহ মুসলিম ২য় খন্ড ইসলামিক ফাউন্ডেশন ৫ম অধ্যায় অনুচ্ছেদ ৪৩ হাদিস নং- ১৩৫১; ১৩৫২; ১৩৫৩; ১৩৫৪; ১৩৫৫)
উম্মু ফারওয়া (রা.) থেকে বর্ণিত।
তিনি বলেন, “রসূল (স.)-কে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, আমল সমূহের মধ্যে কোন আমল সর্বাধিক উত্তম?
তিনি উত্তরে বলেন, আউয়াল ওয়াক্তে সলাত আদায় করা।”
– সূনান আবূ দাউদ (হা/৪২৬: সহীহ, আলবানী একাডেমী);
অধ্যায়-২: সলাত; অনুচ্ছেদ-৯: সলাতসমূহের হিফাযত করা।
তিরমিযী (হা/১৭০)
সঠিক সময়ে সালাত আদায় করতে হলে সঠিক সময়সূচী প্রয়োজন।

সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৯ নভেম্বর ২০১৫

মূল প্রস্তুতকারক: হাদীছ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ