বেসিক প্রোগ্রামিং টিউটোরিয়াল পার্ট-৩

0
6

বেসিক প্রোগ্রামিং টিউটোরিয়াল পার্ট-৩

আজকের প্রগ্রামাটি হবে কিভাবে ২টি সং্খা যোগ করা যায় তার প্রগ্রাম
এখন কথা হচ্ছে, সংখ্যাগুলো তো কম্পিউটারের মেমোরিতে রাখতে হবে, সেই জটিল কাজটি কীভাবে করব? চিন্তা নেই! সব প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজে ভেরিয়েবল বলে একটি জিনিস আছে যেটি কোন নির্দিষ্ট মান ধারণ করার জন্য ব্যবহার করা হয়। ভেরিয়েবলের একটি নাম দিতে হয়, তারপর ভেরিয়েবল = কোনো মান লিখে দিলে ভেরিয়েবলের ভেতর সেটি ঢুকে যায়। এটির সঙ্গে গাণিতিক সমীকরণের কিন্তু কোনো সম্পর্ক নেই।


ভেরিয়েবল হলো a-z & 1-9 যা আপনি নির্ধারন করতে পারবেন
প্রোগ্রামটি লিখে রান করাই, তারপর ব্যাখ্যা করা যাবে।

#include <stdio.h>
int main()
{
int a,b,sum;
a = 10;
b = 50;
sum = a + b;
printf("Sum is %d", sum);
return 0;
}

 

প্রোগ্রামটি রান করান, আপনি স্ক্রিনে দেখবেন: Sum is 60।

এখানে a, b, sum তিনটি ভেরিয়েবল (variable) আলাদা সংখ্যা ধারণ করে। প্রথমে আমাদের বলে দিতে হবে যে a, b, sum নামে তিনটি ভেরিয়েবল আছে। এবং এগুলোতে কী ধরনের ডাটা থাকবে সেটিও বলে দিতে হবে। int a; দিয়ে আমরা কম্পাইলারকে বলছি a নামে একটি ভেরিয়েবল এই প্রোগ্রামে আছে যেটি একটি পূর্ণসংখ্যা (integer)-এর মান ধারণ করার জন্য ব্যবহার করা হবে। এই কাজটিকে বলে ভেরিয়েবল ডিক্লারেশন। আর int হচ্ছে ডাটা টাইপ, যেটি দেখে সি-এর কম্পাইলার বুঝবে যে এতে ইন্টিজার টাইপ ডাটা থাকবে। আরও বেশ কিছু ডাটা টাইপ আছে, সেগুলো আমরা আস্তে আস্তে দেখব। আমরা চাইলে একই টাইপের । আর লক্ষ করেন যে ভেরিয়েবল ডিক্লারেশনের শেষে সেমিকোলন ব্যবহার করতে হয়।

এরপর আমি দুটি স্টেটমেন্ট লিখেছি:

a = 10;

b = 50;

এখানে a-এর মান 10 আর b-এর মান 50বলে দিলাম (assign করলাম), যতক্ষণ না এটি আমরা পরিবর্তন করছি, কম্পাইলার a-এর মান 10আর b-এর মান 50 ধরবে।

পরের স্টেটমেন্ট হচ্ছে: sum = a + b;। এতে বোঝায়, sum-এর মান হবে a + b-এর সমান, অর্থাৎ a ও b-এর যোগফল যে সংখ্যাটি হবে সেটি আমরা sum নামের ভেরিয়েবলে রেখে দিলাম (বা assign করলাম)।

এবারে যোগফলটি মনিটরে দেখাতে হবে, তাই আমরা printf ফাংশন ব্যবহার করব।

printf("Sum is %d", sum);

এখানে দেখেন printf ফাংশনের ভেতরে দুটি অংশ। প্রথম অংশে “Sum is %d” দিয়ে বোঝানো হয়েছে স্ক্রিনে প্রিন্ট করতে হবে Sum is এবং তার পরে একটি ইন্টিজার ভেরিয়েবলের মান যেটি %d-এর জায়গায় বসবে। তারপর কমা দিয়ে আমরা sum লিখে বুঝিয়ে দিয়েছি যে %d-তে sum-এর মান প্রিন্ট করতে হবে। ইন্টিজারের জন্য যেমন %d ব্যবহার করলাম, অন্য ধরনের ভেরিয়েবলের জন্য অন্য কিছু লিখতে হবে, যেটি আমরা ব্যবহার করতে করতে শিখব।

যাই হোক আপনাদের কে ভালোভাবে বুজানোর জন্ন আমি তামিম শাহরিয়ার এর বই টি ফলো করি,আজকে এতটুকই। আপনার যদি এই পেজ টি ভালো লেগে থাকে তাহলে পেজ টি শেয়ার করুন এবং আপনার ফ্রেন্ড দের যোগ দিন।

LEAVE A REPLY