1G,2G,3G,4G & 5G কিভাবে এলো?

0
6

মোবাইল ফোনের উন্নয়ন ও বিকাশ লাভের জন্য অনেকগুলো ধাপ বা পর্যায় অতিক্রম করতে হয়েছে। এই প্রতিটি ধাপ বা পর্যায়ই হলো মোবাইল ফোনের প্রজন্ম। আশির দশকে প্রথম মোবাইল ফোন পরিচিতি লাভ করে।তারপর গুটিগুটি পায়ে এগিয়ে চলে আজকে স্মার্টফোনে পরিণত হয়েছে এবং এখনো এটি বিবর্তিত হয়েই চলেছে। সম্প্রতি মোবাইল ফোনের নতুন প্রজন্ম যা হলো 5G (পঞ্চম প্রজন্ম/fifth generation) তৈরি হয়েছে। তাই মোবাইল ফোনের প্রজন্মকে পাঁচ ভাগে ভাগ করা যেতে পারে।

1. প্রথম প্রজন্ম (1st Generation – 1G)
2. দ্বিতীয় প্রজন্ম – 2G
3. তৃতীয় প্রজন্ম – 3G
4. চতুর্থ প্রজন্ম – 4G
5. পঞ্চম প্রজন্ম – 5G

প্রথম প্রজন্ম (1G) : ১৯৭৯ সালের জাপানের এনটিটি বানিজ্যিকভাবে অটোমেটেড সেলুলার নেটওয়ার্ক চালু করার মাধ্যমে 1G এর যাত্রা শুরু হয়। এই ফোন গুলোতে কথোপকথন চলার সময় ব্যাবহারকারী স্থান পরিবর্তন করলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যেত।

দ্বিতীয় প্রজন্ম (2G) : ১৯৯০ সালে GSM স্ট্যান্ডার্ড ব্যাবিহার করে 2G এর যাত্রা শুরু হয়েছিল। এই প্রজন্মের ফোনে টেক্স মেসেজিং এবং নিরবিচ্ছিন্নভাবে কথা বলা যেত। হালকা ইন্টারনেট ব্রাউজিং ও করা যেত।

তৃতীয় প্রজন্ম (3G) : উচ্চগতির ইন্টারনেট এবং দ্রুত ডাটা আদান প্রদানের জন্য 3G এর আবির্ভাব। ২০০১ সালে জাপানের এনটিটি ডোকামো WCDMA প্রযুক্তি ব্যাবহার করে 3G নেটওয়ার্ক চালু করে। এখানে উচ্চগতির ইন্টারনেট সুবিধা,আন্তর্জাতিক রোমিং সুবিধা ও ভিডীও কলিং সুবিধা আছে। তবে এটি ব্যাবহারের জন্য বিশেষ থ্রিজি সমর্থিত স্মার্টফোনের দরকার হয়।

চতুর্থ প্রজন্ম (4G) : ফোরজিতে আল্ট্রা-ব্রডব্যান্ড গতির ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে। এর ডেটা স্থানান্তরের গতি ১০০ এম্বিপিএস। 4G এর প্রযুক্তি LTE স্ট্যান্ডার্ড। ফোরজি এর গতি থ্রিজি অপেক্ষা ৫০ গুণ।বাংলাদেশে বর্তমান থ্রিজির পাশাপাশি ফোরজি সেবা শুরু হয়েছে।

পঞ্চম প্রজন্ম (5G) : মোবাইল প্রজন্মের সোনালী যুগ। 4G কভারেজ এর অভাব থেকেই বাণিজ্যিকভাবে কোরিয়াতে শুরু হয়ে গেছে ফাইভজি। কোরিয়ার এসকে টেলিকম এটি প্রথম বাণিজ্যিক ভাবে প্রতিষ্ঠা করে। আমেরিকার বিশেষ কিছু অঙ্গ রাজ্যে স্বল্পপরিসরে ফাইভজি সেবা পাওয়া যায়। হুয়াওয়ে টেলিকম খুব শীঘ্রই ফাইভজি সহজলভ্য করে তুলবে। এতে রয়েছে উচ্চ গতির ইন্টারনেট সুবিধা। ফোরজির চাইতে শতগুন বেশি গতি সম্পন্ন প্রযুক্তি এটি।

তবে বাংলাদেশে ফাইভজি সেবা আসতে আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। কারন ফোরজি সেবাই এখনো এখানে ভালোভাবে কার্যকর হয় নি। আর্টিকেলটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন।

LEAVE A REPLY